বাল্য বিবাহ কাকে বলে? বাল্য বিবাহের শাস্তি কি?

বাল্য বিবাহ আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ

বাল্য বিবাহের শাস্তি কি, এটা জানার আগে আমাদের জানতে হবে যে - বাল্য বিবাহ কাকে বলে? তাহলে চলুন, আজকে আমরা স্বল্প সময়ে "বাল্য বিবাহ কাকে বলে" এবং "বাল্য বিবাহের শাস্তি কি" - এই সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা নিয়ে নিই।

বাল্য বিবাহ কাকে বলে?

বাল্য বিবাহ একটি শাস্তি যোগ্য অপরাধ। কোন ব্যাক্তি কোন শিশুকে বাল্য বিবাহ করতে বা করাতে বাধ্য করতে পারবে না। এখানে শিশু বলতে ঐ ব্যক্তিকে বুঝাবে যার বয়স পুরুষ হলে ২১ বছরের নিচে এবং নারী হলে ১৮ বছরের নিচে। বাল্যবিবাহ বলতে ঐ বিবাহকে বুঝায় যেখানে বিবাহের পক্ষগণের যে কোন একপক্ষ শিশু।

বাল্য বিবাহের শাস্তি কি?

বাংলাদেশে দন্ডবিধি ১৮৬০ আইনে বাল্যবিবাহের শাস্তি সম্পর্কে বলা আছে। শিশু বিবাহকারী তথা একুশ বছরের নিচে পুরুষ লোকের শাস্তি বাতিল করা হয়েছে। কোন একুশ বছরের বয়সোর্ধ্ব পুরুষ বা আঠারো বয়সোর্ধ্ব মহিলা হয়ে কোন বাল্যবিবাহের চুক্তি করলে ঐ লোকের জন্যে একমাস পর্যন্ত বিনাশ্রম কারাবাস বা এক হাজার টাকা পর্যন্ত বর্ধনযোগ্য জরিমানা বা উভয়বিধ শাস্তিযোগ্য বলে বিবেচিত হবে। কেউ যেকোন বাল্যবিবাহের অনুষ্ঠান পরিচালনা বা নির্দেশ দিলে তিনি এক মাস পর্যন্ত বিনাশ্রম কারাবাসে বা এক হাজার টাকা পর্যন্ত বর্ধনযোগ্য জরিমানায় বা উভয়বিধ দন্ডে শাস্তিযোগ্য হবেন যদি না তিনি প্রমাণ করতে পারেন যে ঐ বিয়ে কোন বাল্যবিবাহ ছিল না।

আরো পড়ুনঃ গর্ভবতী শ্রমজীবী নারীরা কি কি সরকারি সুবিধা পান?

বাল্য বিবাহের শাস্তি সম্পর্কে আরও বলা আছে যে, যেক্ষেত্রে কোন নাবালক কোন বাল্যবিবাহের চুক্তি বা মধ্যস্থতা করে সেক্ষেত্রে ঐ নাবালকের ভারপ্রাপ্ত অভিভাবকদের যেকোন ব্যক্তি যেমনঃ পিতা-মাতা হোক বা অন্য কেউ হোক, আইনসম্মত হোক বা বেআইনী হোক যদি ঐ বিয়েতে উৎসাহ দেন অথবা বিয়ে অনুষ্ঠিত হওয়া হতে নিবারণ করতে অবহেলার কারনে ব্যর্থ হন, তাহলে তিনি এক মাস পর্যন্ত বর্ধনযোগ্য বিনাশ্রম কারাবাসে বা একহাজার টাকা পর্যন্ত বর্ধনযোগ্য জরিমানায় বা উভয়বিধ দন্ডে শাস্তি পাবেন। তবে কোন মহিলাকে কারাবাসের শাস্তি দেওয়া হবে না।

দেশের সচেতন নাগরিক হিসেবে সবাইকে অবশ্যই দেশের আইন কানুন মেনে চলতে হয় এবং নিজের প্রয়োজনেই জনগণকে আইন সম্পর্কে সচেতন হতে হয়। কেউ আইনের উর্দ্ধে নয় এবং আইনের অজ্ঞতা ক্ষমার যোগ্যও নয়।

আজকের আর্টিকেলটি (বাল্য বিবাহের শাস্তি কি? বাল্য বিবাহ কাকে বলে?)  পছন্দ হলে শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দেয়ার অনুরোধ রইলো। আর যদি আপনাদের মনে আরও কোনো প্রশ্ন থাকে, তবে তা নিচে কমেন্ট করেও জানাতে পারেন।

যে কোন আইনী পরামর্শের জন্যে যোগাযোগ করতে ইমেইল করুন -
Email: info.shuhag@gmail.com
অথবা,
কন্টাক্ট বক্সে মেসেজ করতে পারেন।

নবীনতর পূর্বতন