অতিরিক্ত ওজনের কারণে প্রতিবছর ১০ লক্ষ মানুষের মৃত্যু : WHO

স্থূলতায় আক্রান্ত 

 আমরা প্রায়ই আমাদের চারপাশে অতিরিক্ত ওজনের বহু মানুষ কে দেখতে পাই। অনেকেই আবার তাদেরকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করে থাকি। কিন্তু আপনি কী জানেন, অতিরিক্ত স্থূলতা শীঘ্রই মহামারীতে পরিণত হতে চলেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) এর সাম্প্রতিক রিপোর্টে উঠে এসেছে এমনই এক ভয়ঙ্কর তথ্য। WHO জানিয়েছে যে,  ইউরোপে শিশু থেকে বৃদ্ধ লোকেদের নিয়ে করা এক গবেষণায় তারা দেখতে পেরেছেন যে প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষ স্থূলতার শিকার। বাদ যাচ্ছে না শিশুরাও। হু’র তথ্য অনুযায়ী শিশুদের ক্ষেত্রে স্থূলতার প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা গেছে। প্রায় এক তৃতীয়াংশ শিশু স্থূলতার সমস্যায় ভুগছে।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা তাদের জারি করা এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে চলেছে স্থূলতায় আক্রান্ত লোকের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত হু'র কোন সদস্য দেশ ২০২৫ সালের মধ্যে স্থূলতা বৃদ্ধি রোধ করার লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেনি বলেও জানানো হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে। ডব্লিউএইচও জানিয়েছে- তুরস্ক, ইজরায়েল এবং ব্রিটেনে স্থূলতার হার সবচেয়ে বেশি। 

ডাব্লুএইচও আরও জানিয়েছে, কেবলমাত্র স্থুলতার জন্যই বিশ্বে প্রতিবছর ১০ লক্ষ মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন। এ বিষয়ে বাড়তি সাবধানতা অবলম্বন করতে বলেছেন বিজ্ঞানীরা। তারা বলেছেন, স্থূলতা মূলত একাধিক রোগের জন্মদাতা। স্থূলতার কারণে শরীরে বাসা বাঁধতে পারে উচ্চ রক্তচাপ (হাই প্রেসার), সুগার (ডায়াবেটিক) কিংবা ক্যান্সারের মত কঠিন রোগ।

ডব্লিউএইচও ইউরোপের প্রধান ডঃ হ্যান্স ক্লুজ বলেছেন, কোভিডের সময় থেকে আরও বেশি হারে মানুষ স্থুলতার শিকার হচ্ছেন, যা কার্যত মহামারীতে পরিণত হচ্ছে। ক্লুজ আরও বলেছেন, বিশ্বের একাধিক দেশেই করোনার প্রকোপে বাড়ি বসে কাজের প্রবণতা বাড়া স্থুলতার প্রধান কারণ। সেই সঙ্গে বিশ্বের উন্নত দেশগুলিকে স্থুলতা রোধে যাবতীয় পরিকল্পনা গ্রহণ করার কথাও বলেছেন তিনি। পাশাপাশি খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন এবং নিয়মিত শরীর চর্চার ওপর বিশেষ নজর রাখার বার্তা দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, সিডিএসের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২০ বছরের ওপর ৭৪ শতাংশ মানুষ স্থূলতায় আক্রান্ত।



নবীনতর পূর্বতন