সহবাসের আগে পড়ার দোয়া | শরীয়ত মোতাবেক সহবাস করার নিয়ম | সহবাসের আগে করণীয়

সহবাস

 পর-স্ত্রী কিংবা পর পুরুষের সাথে সম্পর্ককে ইসলামী শরীয়ত যেমন নিষিদ্ধ করেছে, ঠিক তেমনি সামাজিক ভাবেও এটি একটি ঘৃণিত কাজ। বিয়ের পূর্বের দৈহিক সম্পর্ককে জিনা বলে যা জঘণ্য অপরাধ আবার ঐ একই নারী বা পুরুষের  সাথে বিয়ের পরে সহবাস শরীয়ত সম্মত এবং পবিত্র এবাদত।

সহবাস করার কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম কানুন রয়েছে। আমাদের দৈহিক সম্পর্কের পবিত্রতা রক্ষা করতে সহবাসের নিয়ম কানুন গুলো মেনে চলা উচিত।

সহবাসের আগে পড়ার দোয়া :

بِسْمِ اللّٰهِ اَللّٰهُمَّ جَنِّبْنَا الشَّيْطَانَ وَجَنِّبِ الشَّيْطَانَ مَا رَزَقْتَنَا.

সহবাসের আগে পড়ার দোয়ার উচ্চারণ :

বিসমিল্লাাহি আল্লাাহুম্মা জান্নিবনাা শাইত্বাানা ওয়া জান্নিবিশ শাইত্বাানা মাা রযাক্বতানাা।

সহবাসের আগে পড়ার দোয়ার বাংলা অর্থ :

আল্লাহর নামের সাথে শুরু করছি। হে আল্লাহ! আপনি আমাদেরকে শয়তান হতে রক্ষা করুন এবং আপনি আমাদেরকে যে সন্তান দান করবেন তাকে শয়তান হতে রক্ষা করুন।

হযরত ইবনে আব্বাস (রাযিঃ) বলেন, নবী করীম (সঃ) এরশাদ করেছেনঃ যখন কেহ নিজ স্ত্রীর নিকট আসে এবং এই দোয়া পড়ে -

بسم الله اللهم جنبنا الشيطان وجنب الشيطان ما رزقتنا

অতঃপর ঐ সময়ের সহবাসে যদি তাহাদের সন্তান পয়দা হয়, তবে শয়তান কখনো তাহাদের ক্ষতি করিতে পারিবে না। অর্থাৎ সন্তান ঐ বাচ্চার ব্যাপারে গোমরাহ করার ব্যাপারে কখনও কামিয়াব হইতে পারিবে না।

দোয়ার অর্থ :

আল্লাহর নামে এই কাজ করিতেছি। হে আল্লাহ্‌! আমাকে শয়তান হইতে রক্ষা করুন এবং আপনি যে সন্তান আমাদিগকে দান করিবেন তাহাদিগকেও শয়তান হইতে রক্ষা করুন। (বুখারী)

আজকের আর্টিকেলটি (সহবাসের আগে পড়ার দোয়া) পছন্দ হলে শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দেয়ার অনুরোধ রইলো। আর যদি আপনাদের মনে আরও কোনো প্রশ্ন থাকে, তবে তা নিচে কমেন্ট করেও জানাতে পারেন।

নবীনতর পূর্বতন