সাপের ভয় হলে পড়ার দোয়া | সাপ থেকে বাঁচার দোয়া | সাপে কামড়ালে করণীয় কি

সাপ

 সাপ একটি ভয়ংকর ও বিষাক্ত প্রাণী।কিন্তু তাই বলে যাচ্ছেতাই ভাবে সাপ মারা অন্যায়। তাছাড়া, বাংলাদেশে সাধারণত যে সকল সাপ পাওয়া যায় তার বেশির ভাগই নির্বিষ। তুলনামূলকভাবে কেবল সামুদ্রিক সাপগুলোই বিষাক্ত। তবুও গোখুরা, কেউটে জাতীয় অল্পকিছু বিষাক্ত সাপ আমাদের দেশের স্থলভাগে পাওয়া যায়। বিশেষভাবে লক্ষণীয় যে, বর্ষার মৌসুমে বাংলাদেশে সাপের প্রাদুর্ভাব বেশি দেখা যায়।

সাপকে ভয় পায়না এমন লোক হয়তো খুঁজেও পাওয়া যাবে না। কারনে অকারনে সাপের প্রতি মানুষের ফোবিয়া লক্ষ্য করা যায়। যদি কোন লোক সাপে ভয় পায় কিংবা হঠাৎ করে সাপের মুখোমুখি হয় তখন ঐ লোকের দোয়া পড়া উচিত এবং পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া জরুরী। 

সাপের ভয় হলে পড়ার দোয়া :

اِنَّا نَسْئَلُكَ بِعَهْدِ نُوْحٍ وَبِعَهْدِ سُلَيْمَانَ بْنِ دَاؤُدَ اَنْ لَا تُؤْذِيْنَا.اِنَّا نَسْئَلُكَ بِعَهْدِ نُوْحٍ وَبِعَهْدِ سُلَيْمَانَ بْنِ دَاوٗ دَ اَنْ لَّا تُؤْذِيَنَا.

সাপের ভয় হলে পড়ার দোয়ার উচ্চারণ :

ইন্না নাসআলুকা বি‘আহদি নূ হিন ওয়া বি ‘আহদি সুলাই মানাবনি দা উদা আন লা তু’যীনা।

সাপের ভয় হলে পড়ার দোয়ার বাংলা অর্থ :

ও হে সাপ! আমরা নূহ্ আলাইহিস সালাম এবং সুলাইমান আলাইহিস সালামের অঙ্গীকারের কথা তোদের স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি। তোরা আমাদের কোন ক্ষতি করিস না এবং আমাদের কষ্ট দিস না।

(তিরমিযী হাদীস নং-১৪৮৯, ১৪৮৫)

উল্লেখ্য, যদি কাউকে সাপে দংশন করে তবে ঐ লোককে যেত দ্রুত সম্ভব নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে। প্রায় সকল সাপেরই প্রতিষেধক বর্তমানে আবিষ্কার হয়েছে।

ভুল করেও সাপে কাটা রোগীকে ওঝা কিংবা কবিরাজের কাছে নিয়ে যাবেন না, তাতে রোগী মারা যাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

যদি সম্ভব হয় তবে যে সাপটি রোগীকে দংশন করেছে, সেটি কোন জাতের সাপ তা চিনতে পারলে দ্রুত চিকিৎসা নিতে সুবিধা হয়।

আজকের আর্টিকেলটি (সাপের ভয় হলে পড়ার দোয়া) পছন্দ হলে শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দেয়ার অনুরোধ রইলো। আর যদি আপনাদের মনে আরও কোনো প্রশ্ন থাকে, তবে তা নিচে কমেন্ট করেও জানাতে পারেন।


নবীনতর পূর্বতন