সালাতুল তাসবীহ নামাজ পড়ার নিয়ম | সালাতুল তাসবীহ কি | সালাতুল তাসবীহ নামাজ

সালাতুল তাসবীহ 

সালাতুল তাসবীহ নামাজ একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও আবশ্যিক ইবাদত। জীবনে অন্তত একবার করে হলেও সালাতুল তাসবীহ নামাজ আদায় করা উচিত। আল্লাহ যেন সবাইকে সালাতুল তাসবীহ নামাজ আদায়ের তৌফিক দান করেন। আজকে আমরা জেনে নিবো কিভাবে সালাতুল তাসবীহ নামাজ পড়তে হয়, অর্থাৎ সালাতুল তাসবীহ নামাজের নিয়ত, তাসবীহ এবং সালাতুল তাসবীহ নামাজ আদায়ের পুরো নিয়ম।

সালাতুল তাসবীহ :

سُبْحَانَ اللَّهِ وَالْحَمْدُ لِلَّهِ وَلَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ وَاللَّهُ أَكْبَرُ

সালাতুল তাসবীহ এর উচ্চারণ : সুবহানাল্লাহি ওয়াল হামদুলিল্লাহি ওয়া লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার

সালাতুল তাসবীহ এর অনুবাদ : 

আল্লাহর পবিত্রতা ঘোষণা করিতেছি, এবং সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য, আল্লাহ ব্যতীত কোন মা’বুদ নাই, তিনি সর্বশ্রষ্ঠ।

{সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-১২৯৯, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-১৩৮৭, সহীহ ইবনে খুজাইমা, হাদীস নং-১২১৬, সুনানে বায়হাকী কুবরা, হাদীস নং-৪৬৯৫}

রাসূলুল্লাহ্ (সঃ) তাঁর চাচা সাইয়্যিদুনা আব্বাস (রা:) কে বলেন, আমি আপনাকে রহমতের কথা বলব? আমি আপনাকে পুরস্কারের কথা বলব? আমি আপনাকে প্রাপ্তির কথা বলব? আমি আপনাকে স্রষ্টার অনুগ্রহের কথা বলব? আমি আপনাকে সৃষ্টিকর্তার দয়া-অনুগ্রহ ও অনুকম্পার কথা বলব? যখন আপনি নামায-টি পড়বেন তখন আল্লাহতা’লা আপনার অতীত ও ভবিষ্যতের, নতুন ও পুরোনো , জানা এবং অজানা, ছোট-বড়, গুপ্ত ও প্রকাশিত সব পাপ মাফ করে দিবেন। তারপর নবীজী (সঃ) সালাতুল তাসবীহ পড়ার পুরো ব্যাপারটি দেখিয়ে দিলেন এবং আরো বলেন, যদি পারেন তবে এই নামাজ দিনে একবার পরবেন, নাহলে প্রতি জুমআর দিনে , যদি তাও না পারেন তবে মাস এ একবার, আর তাও না সম্ভব হলে বছর এ একবার, আর এটাও যদি সম্ভব না হয় তবে পুরো জীবদ্দশায় একবার।

কিভাবে সালাতুল তাসবীহ পড়তে হয়?

জাওয়াল, সুর্যাস্ত, সূর্যোদয়, নামায এর জন্য নিষিদ্ধ ও মাকরুহ সময় বাদে দিন অথবা রাতের যেকোন সময় একবারে চার রাকাতে সালাতুল তাসবীহ নামাজটি আদায় করতে হয়।

সালাতুল তাসবীহতে কোন তাসবীহ পড়তে হয়? 

সালাতুল তাসবীহতে যে তাসবীহটি পড়তে হয়, তা হলো

- "সুবহানাল্লাহি ওয়াল হামদুলিল্লাহি ওয়া লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার" ।

সালাতুল তাসবীহ নামাজ আদায়ের নিয়ম :

সালাতুল তাসবীহ এর নামাজে নিম্নোক্ত উপায়ে পুরো চার রাকাত এ মোট ৩০০ বার উপর্যুক্ত তাসবীহ পড়তে হবে।

1. ১ম রাকাত এ সানা পড়ার পরে তাসবীহ টি ১৫ বার পড়তে হবে।

2. তারপর স্বাভাবিক নিয়মে সুরা ফাতিহা ও অন্য আরেকটি সুরা অথবা অন্তত তিন আয়াত পড়ার পরে তাসবীহটি ১০ বার পড়তে হবে ।

3. এরপর রুকুতে গিয়ে রুকুর তাসবীহ পরার পরে তাসবীহ টি ১০ বার পড়তে হবে।

4. এরপর কিয়াম এ গিয়ে "রাব্বানা লাকাল হামদ" পড়ার পরে তাসবীহটি ১০ বার পড়তে হবে।

5. এরপর সিজদায় গিয়ে সিজদার তাসবীহ পরে তাসবীহ টি ১০ বার পড়তে হবে ।

6. প্রথম সিজদা থেকে বসে তাসবীহ টি ১০ বার পড়তে হবে ।

7. এরপর আবার সিজদায় গিয়ে সিজদার তাসবীহ পরে তাসবীহ টি ১০ বার পড়তে হবে ।

8. তারপর একই ভাবে ২য় রাকাত পড়তে হবে, কিন্তু ২য় রাকাত এ সুরা ফাতিহা পড়ার আগে তাসবীহ টি ১৫ বার পড়তে হবে ।

9. অতঃপর ২য় রাকাত এর ২য় সিজদার পর "আত্তহিয়্যাতু" পড়ার পরে সালাম না ফিরিয়ে , ১ম রাকাত এর মতো ৩য় রাকাত শুরু করতে হবে (তাসবীহ টি ১৫ বার পড়ে স্বাভাবিক নিয়মে সুরা ফাতিহা ও অন্য আরেকটি সুরা পড়তে হবে) একই প্রক্রিয়া পরবর্তী ২রাকাত শেষ করতে হবে।

এভাবেই সালাতুল তাসবীহ এর নামাজ আদায় করা সম্ভব।

আজকের আর্টিকেলটি পছন্দ হলে শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দেয়ার অনুরোধ রইলো। আর যদি আপনাদের মনে আরও কোনো প্রশ্ন থাকে, তবে তা নিচে কমেন্ট করেও জানাতে পারেন।

 

নবীনতর পূর্বতন