সুনামগঞ্জের দোয়ারা বাজারে দু'পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত


 সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার গ্রামের বাজারের রাস্তা সম্প্রসারণ করার বিষয় নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় উপজেলার নরসিংপুর বাজারে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ সংঘর্ষ থামাতে ১৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। এই সংঘর্ষের পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নরসিংপুর বাজারে দোকান ঘরের মালিকানা ও দখল নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন এবং উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। শুক্রবার বিকেলে দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাংশু কুমার সিংহ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়সাল আহমেদ, দোয়ারাবাজার থানার ওসি দেবদুলাল ধরের উপস্থিতিতে প্রশাসন পক্ষ থেকে নরসিংপুর বাজারের রাস্তা সম্প্রসারণের নিয়ে পরিদর্শন ও মাপজোখ করা হচ্ছিল।

এই সময় ইউপি চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের লোকজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। ঘটনার এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। দুই পক্ষই ইটপাটকেল ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া করে। এতে অন্তত ২০ জন আহত হয়। এসময় বাজারের বেশ কয়েকটি দোকান-পাট ভাংচুর করার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে।

দোয়ারাবাজার থানার ওসি দেবদুলাল ধর সংঘর্ষের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নরসিংপুর বাজারের রাস্তা সংলগ্ন দোকান ঘরের জমির মালিকানা নিয়ে দুই পক্ষের পূর্ব বিরোধ ছিল এবং এরই এরই প্রেক্ষিতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বর্তমানে এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে বলে জানা গেছে।

নবীনতর পূর্বতন