নায়ক মান্নার ১৪তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ

 

মান্না

বাংলা সিনেমার সুপার হিট চিত্রনায়ক এস এম আসলাম তালুকদার মান্না। তাঁর হাত ধরেই বাংলা সিনেমা জগৎ নতুন মাত্রা পায়। আজ ১৭ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) নায়ক মান্নার ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শোক প্রকাশ করছেন তাঁর ভক্ত বৃন্দ ।

২০০৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের ১৭ তারিখ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন মান্না। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বাংলা সিনেমাকে অনেক সুপারহিট চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন তিনি।

প্রতি বছরের ন্যায় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মান্নার স্ত্রী শেলী মান্না ও মান্না ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে মরহুম মান্নার সহধর্মিণী শেলী মান্না বলেন, এ বছর তেমন কোনো আয়োজন থাকছে না। তবে ছোট পরিসরে দোয়া মাহফিল করা হবে।

এছাড়া বহু হিট সুপারহিট সিনেমার এ নায়কের মৃত্যুদিনে তাকে স্মরণ করবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি, পরিচালক সমিতি।

১৯৮৪ সালে বিএফডিসি আয়োজিত নতুন মুখের সন্ধানে কার্যক্রমের মাধ্যমে মান্না চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন। তার প্রথম অভিনীত সিনেমা ‘তওবা’ (১৯৮৪)।

মান্না অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবি হচ্ছে- সিপাহী, যন্ত্রণা, অমর, পাগলী, ত্রাস, জনতার বাদশা, লাল বাদশা, আম্মাজান, আব্বাজান, রুটি, দেশ দরদী, অন্ধ আইন, স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ, অবুঝ শিশু, মায়ের মর্যাদা, মা-বাবার স্বপ্ন, হৃদয় থেকে পাওয়া ইত্যাদি।

১৯৬৪ সালে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গায় জন্মগ্রহণ করেন নায়ক মান্না। মৃত্যুর পর তাকে সেখানেই সমাহিত করা হয়। এতো বছর পরেও অনেক ভক্ত মাঝে মাঝেই নায়ক মান্নার কবর দেখতে ভিড় করেন।

নবীনতর পূর্বতন