শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার ব্যয়ভার নিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

 


শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি ফরিদ উদ্দিনের অপসারণের দাবীতে সৃষ্ট আন্দোলনে আহত এবং অনশনে অসুস্থ শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার সকল ব্যয়ভার নিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা  বলেন যে, ‘অনশনে অসুস্থ হয়ে পড়া শিক্ষার্থীরা সরকারি খরচে উন্নত চিকিৎসা সহায়তা পাবেন।’ এই জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেন মোহাইমিনুল বাশার রাজ। তিনি বলেন, ‘'পুলিশের হামলায় আহত ও অনশনে অসুস্থ শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার সব খরচ পরিশোধ করায় আমরা প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আহত সৌরভের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় সব ব্যবস্থা করা হয়েছে। সরকারের নির্দেশনায় শিক্ষামন্ত্রী আমাদের মূল দাবিসহ অন্যান্য দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা সব শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।"

২০২২ সালের ১৩ জানুয়ারি থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রভোস্ট কমিটির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলনের ডাক দেন শিক্ষার্থীরা। এরই ধারাবাহিকতায় ১৬ জানুয়ারি বিকেল বেলায় তিন দফা দাবি আদায়ে উপাচার্যকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীরা। 

এর পর পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনার জের বাড়তে থাকলে পুলিশ সদস্য্যরা সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হন। পরবর্তীতে পুলিশ ৩০০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

এরই প্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলার ঘটনায় উপাচার্যকে দায়ী করে তার পদত্যাগ দাবি করে। নিজেদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে এতদিন আমরণ অনশনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি চালিয়ে আসছিলেন শিক্ষার্থীরা। গত ২৬ জানুয়ারি টানা সাতদিনের অনশন ভাঙলেও উপাচার্যের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে অহিংস আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার ছাত্ররা ফুটবলে ভিসি ফরিদ উদ্দিনের নাম লিখে একটি ফুটবল ম্যাচের মাধ্যমে তাদের প্রতিবাদের ধরণে নতুন মাত্রা যোগ করেন।

নবীনতর পূর্বতন